তাওয়ারুস ব্লগ

ইলমের পথে, সালাফের সাথে

আধুনিক মুসলিম নারী সমাজের স্বরূপ সন্ধানে

বর্তমান যুগের মুসলিম বোনেদের বিরাট অংশ কোনো না কোনোভাবেই পোস্টমর্ডার্ন চিন্তাভাবনা দ্বারা প্রভাবিত। এমনকি যারা অন্যদেরকে কলোনিয়ালাইজড বলে, তাদের অনেকে নিজেরাই কলোনিয়ালাইজড। আর যারা কলোনিয়ালাইজড না তাদের অনেকেই উপমহাদেশীয় ব্রাহ্মণ্যবাদ দ্বারা চরমভাবে প্রভাবিত। কেউ কেউ নিজ নিজ দেশীয় টক্সিক পুরুষতন্ত্র দ্বারা প্রভাবিত। আমি যেহেতু উপমহাদেশের মেয়ে, তাই প্রথম দুই দলের ব্যাপারে আমার আলাপ কিছুটা সার্বজনীন হলেও তৃতীয় ভাগে আমি বিশেষভাবে বাঙালি মুসলিম সমাজে মেয়েদের মধ্যে ব্রাহ্মণ্যবাদের প্রভাব প্রসঙ্গে আলোচনা করবো। আমাদের আলাপ বিশেষত বর্তমান প্রজন্মকে নিয়ে। আমাদের এক প্রজন্ম আগে বা দুপ্রজন্ম আগের মুসলিম নারীদের নিয়ে আলাপ করাটা এ আলোচনায় খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ নয়। মুসলিমদের মধ্যে একদল মুসলিম কেবল নামেই মুসলিম। তাদের ব্যক্তিগত জীবনে কর্মগত বা আদর্শগত কোনো দিক থেকেই ইসলামের ছিটেফোঁটা নেই। তাদের বাইরে বাদবাকি মুসলিম নারীদের নিয়ে এ লেখাটিতে আলাপ করা হবে। এ লেখাটি অমুসলিম পাঠকদের জন্য নয়। তাই ইসলামের নির্দিষ্ট কোনো আদর্শিক অবস্থানের পিছনে কী হিকমাহ আছে সেসব বিষয়ে আলাপ করে আমি আমাদের আলোচনা বৃদ্ধি করব না। অমুসলিমদের প্রশ্ন ও এর উত্তর নিয়ে আমরা অন্য কোনো লেখাতে আলাপ করব ইন শা আল্লাহ। এ লেখাটি কেবল তাদের জন্য, যারা দাবী করে, ইসলামী শরীয়াহর দলীলকে...

বিস্তারিত পড়ুন

ইসলামি অর্থনীতি ও
একটি সরল আলাপ

ইসলামী অর্থনীতির ধারণাকে আমরা খুব জটিল হিসেবে দেখি। এর প্রধান একটি কারণ হল, আমরা ইসলামী অর্থনীতির শিরোনামে যেই বিষয়গুলো নিয়ে অধিক আলোচনা করি সেগুলো আসলে ইসলামী অর্থনীতির মৌলিক কাঠামোর বিষয় নয়। আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ পুঁজিবাদী অর্থব্যবস্থার ভিতরে বসবাস করছি। আর পুঁজিবাদী অর্থব্যবস্থার ফাঁদ ও প্রতারণা অনেক জটিল বিষয়। এর কাঠামোটাও খুব জটিল। ইসলামী অর্থনীতির নামে আমরা অধিকাংশ সময়...

ইসলামি অর্থনীতি

উম্মাহ যার ইলম থেকে বঞ্চিত

রিয়াদের জামিয়াতুল ইমাম মুহাম্মাদ বিন সউদ থেকে তিনি স্নাতক লাভ করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জীবন শেষ করে তিনি সৌদির ইসলামিক এফেয়ার্স এন্ড গাইডেন্স মন্ত্রণালয়ে গবেষণা ও দাওয়াতের কাজে নিযুক্ত হোন। পরবর্তীতে সেখানে কিছু বিষয়ে শাইখের মতবিরোধ হওয়ায় বেরিয়ে আসেন। তবে তার ইলমের সফর থেমে যায়নি। ইলমের জন্য তিনি মুসলিম বিশ্বের নানাপ্রান্তে সফর করেন। মিশর, তিউনিসিয়া এমনকি আমাদের হিন্দুস্থানেও তাঁর ইলমী সম্পর্ক ছিল।

তাদের যুক্তি হল, “শরিয়াহর বিধানগুলো মূলত এসকল মাকাসিদ অর্জনের জন্যেই এসেছে। ফলে যখন আহকামসমূহের আপাত ফলাফল মাকাসিদের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণ হবে তখন আমরা বাহ্যিক নসের উপর আমল না করে উল্লেখিত মাকাসিদগুলো অর্জনের চেষ্টা করবো।” এই ধরণের যুক্তি কাঠামো মূলত পুরো শরিয়াহকেই নাকচ করে দেয় এবং

previous arrow
next arrow
PlayPause
Slider

সর্বশেষ প্রকাশিত ব্লগ

তাওয়ারুসে প্রকাশিতসাম্প্রতিকতমব্লগ

photo_2020-10-31_17-40-11

আধুনিক মুসলিম নারী সমাজের স্বরূপ সন্ধানে

বর্তমান যুগের মুসলিম বোনেদের বিরাট অংশ কোনো না কোনোভাবেই পোস্টমর্ডার্ন চিন্তাভাবনা দ্বারা প্রভাবিত। এমনকি যারা অন্যদেরকে কলোনিয়ালাইজড বলে, তাদের অনেকে নিজেরাই কলোনিয়ালাইজড। আর যারা কলোনিয়ালাইজড না তাদের অনেকেই উপমহাদেশীয় ব্রাহ্মণ্যবাদ দ্বারা চরমভাবে প্রভাবিত। কেউ কেউ নিজ নিজ দেশীয় টক্সিক পুরুষতন্ত্র দ্বারা প্রভাবিত। আমি যেহেতু উপমহাদেশের মেয়ে, তাই প্রথম দুই দলের ব্যাপারে আমার আলাপ কিছুটা সার্বজনীন হলেও তৃতীয় ভাগে আমি বিশেষভাবে বাঙালি মুসলিম সমাজে মেয়েদের মধ্যে ব্রাহ্মণ্যবাদের প্রভাব প্রসঙ্গে আলোচনা করবো। আমাদের আলাপ বিশেষত বর্তমান প্রজন্মকে নিয়ে। আমাদের এক প্রজন্ম আগে বা দুপ্রজন্ম আগের মুসলিম নারীদের নিয়ে আলাপ করাটা এ আলোচনায় খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ নয়।
মুসলিমদের মধ্যে একদল মুসলিম কেবল নামেই মুসলিম। তাদের ব্যক্তিগত জীবনে কর্মগত বা আদর্শগত কোনো দিক থেকেই ইসলামের ছিটেফোঁটা নেই। তাদের বাইরে বাদবাকি মুসলিম নারীদের নিয়ে এ লেখাটিতে আলাপ করা হবে। এ লেখাটি অমুসলিম পাঠকদের জন্য নয়। তাই ইসলামের নির্দিষ্ট কোনো আদর্শিক অবস্থানের পিছনে কী হিকমাহ আছে সেসব বিষয়ে আলাপ করে আমি আমাদের আলোচনা বৃদ্ধি করব না। অমুসলিমদের প্রশ্ন ও এর উত্তর নিয়ে আমরা অন্য কোনো লেখাতে আলাপ করব ইন শা আল্লাহ। এ লেখাটি কেবল তাদের জন্য, যারা দাবী করে, ইসলামী শরীয়াহর দলীলকে…

আধুনিক মুসলিম নারী সমাজের স্বরূপ সন্ধানে

বর্তমান যুগের মুসলিম বোনেদের বিরাট অংশ কোনো না কোনোভাবেই পোস্টমর্ডার্ন চিন্তাভাবনা দ্বারা প্রভাবিত। এমনকি যারা অন্যদেরকে কলোনিয়ালাইজড বলে, তাদের অনেকে নিজেরাই কলোনিয়ালাইজড। আর যারা কলোনিয়ালাইজড না তাদের অনেকেই উপমহাদেশীয় ব্রাহ্মণ্যবাদ দ্বারা চরমভাবে প্রভাবিত। কেউ কেউ নিজ নিজ দেশীয় টক্সিক পুরুষতন্ত্র দ্বারা প্রভাবিত। আমি যেহেতু উপমহাদেশের মেয়ে, তাই প্রথম দুই দলের ব্যাপারে আমার আলাপ কিছুটা সার্বজনীন হলেও তৃতীয় ভাগে আমি বিশেষভাবে বাঙালি মুসলিম সমাজে মেয়েদের মধ্যে ব্রাহ্মণ্যবাদের প্রভাব প্রসঙ্গে আলোচনা করবো। আমাদের আলাপ বিশেষত বর্তমান প্রজন্মকে নিয়ে। আমাদের এক প্রজন্ম আগে বা দুপ্রজন্ম আগের মুসলিম নারীদের নিয়ে আলাপ করাটা এ আলোচনায় খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ নয়।
মুসলিমদের মধ্যে একদল মুসলিম কেবল নামেই মুসলিম। তাদের ব্যক্তিগত জীবনে কর্মগত বা আদর্শগত কোনো দিক থেকেই ইসলামের ছিটেফোঁটা নেই। তাদের বাইরে বাদবাকি মুসলিম নারীদের নিয়ে এ লেখাটিতে আলাপ করা হবে। এ লেখাটি অমুসলিম পাঠকদের জন্য নয়। তাই ইসলামের নির্দিষ্ট কোনো আদর্শিক অবস্থানের পিছনে কী হিকমাহ আছে সেসব বিষয়ে আলাপ করে আমি আমাদের আলোচনা বৃদ্ধি করব না। অমুসলিমদের প্রশ্ন ও এর উত্তর নিয়ে আমরা অন্য কোনো লেখাতে আলাপ করব ইন শা আল্লাহ। এ লেখাটি কেবল তাদের জন্য, যারা দাবী করে, ইসলামী শরীয়াহর দলীলকে…

photo_2020-09-13_22-48-10

ইসলামি ইতিহাস পাঠের পূর্ব সতর্কতা

ঠিক এমনিভাবে প্রাচ্যবিদদেরও ইসলামী ইতিহাস চর্চার আলাদা নীতি ও উদ্দেশ্য আছে। অধিকাংশ তো ইসলামকে বিকৃত করা, মানুষের কাছে ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করা, মুসলিমদের ভিতর ইসলামের ব্যাপারে সন্দেহ তৈরি করা, পাশ্চাত্যের সাথে ইসলামকে সামঞ্জস্যশীল করা সহ ইত্যাদি বিকৃত এজেন্ডা সামনে নিয়ে ইসলামকে পড়েছে। মুসলিমদেরকে পাশ্চাত্যের ধর্মে দীক্ষিত করা, মুসলমানদের উপর তাদের উপনিবেশ ও আদর্শিক কর্তৃত্ব টিকিয়ে রাখা এবং পাশ্চাত্য ও ইসলামী সভ্যতার মাঝে সংঘাতময় জায়গাগুলো মিটিয়ে দেয়া ছিল তাদের প্রধান লক্ষ্য। আবার কেউ কেউ নিরপেক্ষতার জায়গা থেকেও ইসলামী জ্ঞানকে চর্চা করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু তারা পাশ্চাত্য কিছু মূল্যবোধে বিশ্বাসী হওয়ায় সেই জায়গা থেকে ইসলামকে দেখেছে। হাসান আসকারী রহিঃ বলেন, প্রাচ্যবিদদের ইসলামী জ্ঞান চর্চার নেপথ্যে ষড়যন্ত্রমূলক বিভিন্ন উদ্দেশ্য ছিল। তবে এই উদ্দেশ্যসমূহের পাশাপাশি সেসব চিন্তাচেতনার প্রভাব কার্যকর ছিল যেগুলো পশ্চিমা সভ্যতার ইতিহাসে নানাভাবে জন্ম নিয়েছিল। যেমন ইতিহাসবাদ, মুক্তচিন্তা, বস্তুবাদ ইত্যাদি। ফলে ষড়যন্ত্রমূলক উদ্দেশ্যের বাইরে থেকেও যারা নিষ্ঠার সাথে ইসলামী জ্ঞান চর্চার প্রতি মনোনিবেশ করেছিল উল্লেখিত পাশ্চাত্য দর্শনগুলোর প্রভাবে তাদের মস্তিষ্কটাই বিকৃত হয়ে…

ইসলামি ইতিহাস পাঠের পূর্ব সতর্কতা

ঠিক এমনিভাবে প্রাচ্যবিদদেরও ইসলামী ইতিহাস চর্চার আলাদা নীতি ও উদ্দেশ্য আছে। অধিকাংশ তো ইসলামকে বিকৃত করা, মানুষের কাছে ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করা, মুসলিমদের ভিতর ইসলামের ব্যাপারে সন্দেহ তৈরি করা, পাশ্চাত্যের সাথে ইসলামকে সামঞ্জস্যশীল করা সহ ইত্যাদি বিকৃত এজেন্ডা সামনে নিয়ে ইসলামকে পড়েছে। মুসলিমদেরকে পাশ্চাত্যের ধর্মে দীক্ষিত করা, মুসলমানদের উপর তাদের উপনিবেশ ও আদর্শিক কর্তৃত্ব টিকিয়ে রাখা এবং পাশ্চাত্য ও ইসলামী সভ্যতার মাঝে সংঘাতময় জায়গাগুলো মিটিয়ে দেয়া ছিল তাদের প্রধান লক্ষ্য। আবার কেউ কেউ নিরপেক্ষতার জায়গা থেকেও ইসলামী জ্ঞানকে চর্চা করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু তারা পাশ্চাত্য কিছু মূল্যবোধে বিশ্বাসী হওয়ায় সেই জায়গা থেকে ইসলামকে দেখেছে। হাসান আসকারী রহিঃ বলেন, প্রাচ্যবিদদের ইসলামী জ্ঞান চর্চার নেপথ্যে ষড়যন্ত্রমূলক বিভিন্ন উদ্দেশ্য ছিল। তবে এই উদ্দেশ্যসমূহের পাশাপাশি সেসব চিন্তাচেতনার প্রভাব কার্যকর ছিল যেগুলো পশ্চিমা সভ্যতার ইতিহাসে নানাভাবে জন্ম নিয়েছিল। যেমন ইতিহাসবাদ, মুক্তচিন্তা, বস্তুবাদ ইত্যাদি। ফলে ষড়যন্ত্রমূলক উদ্দেশ্যের বাইরে থেকেও যারা নিষ্ঠার সাথে ইসলামী জ্ঞান চর্চার প্রতি মনোনিবেশ করেছিল উল্লেখিত পাশ্চাত্য দর্শনগুলোর প্রভাবে তাদের মস্তিষ্কটাই বিকৃত হয়ে…

20200902_230521

মুসলিম উম্মাহর অধঃপতন : কারণ ও উত্তরণের পথ

আত্মবিশ্বাস ও মনোবল ছাড়া মুসলমানদের বিজয় আসবে না, অধঃপতন থেকে উত্তরণ হবে না। তাতার-যুগের মুসলমানদের ইতিহাসে দেখা গেছে, তারা এই মনোবলহীনতার শিকার হওয়ার ফলে, এই দাসত্ব মেনে নেওয়ার ফলে মাত্র একটা তাতার শত শত মুসলমানকে হত্যা করেছে। এমনকি এমনও হয়েছে, এক তাতার-সেনা তরবারি আনতে ভুলে গেছে। সে মুসলমানকে রাস্তায় মাথা নিচু করে বসে থাকার নির্দেশ দিল। মুসলমান লোকটাও ওভাবেই মাথা নিচু করে বসে থাকল, তবু পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাটুকু করল না। পরে তাতারটা তরবারি নিয়ে এসে তাকে হত্যা করে দিল। এমনও হয়েছে, একটা তাতার এক সড়কে এল। সেখানে আঠারোজন মুসলিম ছিল। তাতারটা তাদেরকে একে অন্যকে বেঁধে ফেলার নির্দেশ দিল। আর আঠারোজন মুসলিম মাত্র একটা তাতারকে প্রতিরোধ করার পরিবির্তে একে অন্যকে বেঁধে ফেলতে শুরু করল![৩৪] এতটা অধঃপতন, এতটা মানসিক পরাজয়, এতটা মনোবলহীন হলে কখনোই মুসলমানদের বিজয় আসবে না; কাফেরদের মার খেয়ে বেঘোরে মরতে…

মুসলিম উম্মাহর অধঃপতন : কারণ ও উত্তরণের পথ

আত্মবিশ্বাস ও মনোবল ছাড়া মুসলমানদের বিজয় আসবে না, অধঃপতন থেকে উত্তরণ হবে না। তাতার-যুগের মুসলমানদের ইতিহাসে দেখা গেছে, তারা এই মনোবলহীনতার শিকার হওয়ার ফলে, এই দাসত্ব মেনে নেওয়ার ফলে মাত্র একটা তাতার শত শত মুসলমানকে হত্যা করেছে। এমনকি এমনও হয়েছে, এক তাতার-সেনা তরবারি আনতে ভুলে গেছে। সে মুসলমানকে রাস্তায় মাথা নিচু করে বসে থাকার নির্দেশ দিল। মুসলমান লোকটাও ওভাবেই মাথা নিচু করে বসে থাকল, তবু পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাটুকু করল না। পরে তাতারটা তরবারি নিয়ে এসে তাকে হত্যা করে দিল। এমনও হয়েছে, একটা তাতার এক সড়কে এল। সেখানে আঠারোজন মুসলিম ছিল। তাতারটা তাদেরকে একে অন্যকে বেঁধে ফেলার নির্দেশ দিল। আর আঠারোজন মুসলিম মাত্র একটা তাতারকে প্রতিরোধ করার পরিবির্তে একে অন্যকে বেঁধে ফেলতে শুরু করল![৩৪] এতটা অধঃপতন, এতটা মানসিক পরাজয়, এতটা মনোবলহীন হলে কখনোই মুসলমানদের বিজয় আসবে না; কাফেরদের মার খেয়ে বেঘোরে মরতে…

photo_2020-08-31_19-15-12

ইসলামে নারী নেতৃত্বের হুকুম

সকল মাজহাবের ফুকাহায়ে কেরাম এ ব্যাপারে একমত যে, নারীদের হাতে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা অর্পণ করা জায়েজ নেই; এই পদের জন্য প্রাথমিক একটা শর্ত হল তাকে পুরুষ হতে হবে।

এমনকি যারা নারীদের রাজনৈতিক অধিকারের কথা বলেন এবং রাজনীতিতে নারীদের অংশগ্রহণের প্রতি জোর দেন, তারাও রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার ক্ষেত্রে নারীদেরকে সমর্থন করেন না। এক্ষেত্রে তাঁরা বলেন, প্রধানমন্ত্রীত্বের পদ কেবল পুরুষের জন্যই; নারীর জন্য নয়।

এতে কোনো সন্দেহ নেই যে, এই মতের প্রবক্তারা সংসদীয় সরকার ব্যবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর পদকে ইসলামি শাসন ব্যবস্থার প্রধান নেতা (খলিফা)-এর পদের

ইসলামে নারী নেতৃত্বের হুকুম

সকল মাজহাবের ফুকাহায়ে কেরাম এ ব্যাপারে একমত যে, নারীদের হাতে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা অর্পণ করা জায়েজ নেই; এই পদের জন্য প্রাথমিক একটা শর্ত হল তাকে পুরুষ হতে হবে।

এমনকি যারা নারীদের রাজনৈতিক অধিকারের কথা বলেন এবং রাজনীতিতে নারীদের অংশগ্রহণের প্রতি জোর দেন, তারাও রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার ক্ষেত্রে নারীদেরকে সমর্থন করেন না। এক্ষেত্রে তাঁরা বলেন, প্রধানমন্ত্রীত্বের পদ কেবল পুরুষের জন্যই; নারীর জন্য নয়।

এতে কোনো সন্দেহ নেই যে, এই মতের প্রবক্তারা সংসদীয় সরকার ব্যবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর পদকে ইসলামি শাসন ব্যবস্থার প্রধান নেতা (খলিফা)-এর পদের

photo_2020-08-23_01-24-59 (4)

ইসলামে ন্যায়ের ধারণা

ইসলাম ন্যায়ের ধর্ম। ন্যায় অর্জনই ইসলামের প্রধান উদ্দেশ্য। ইসলাম সর্ব ক্ষেত্রেই ন্যায়ের পথকে গ্রহণ করতে নির্দেশ করে।

এই বাক্যগুলোকে দুইভাবে ব্যাখ্যা করা যায় —

এক. ন্যায়ের ধারণা শরিয়াতের বিধান গ্রাহ্য হওয়ার জন্য পৃথক এক মূলনীতি। এর জন্য নবী রাসুলদের দিক-নির্দেশনা এবং ওহীর…

ইসলামে ন্যায়ের ধারণা

ইসলাম ন্যায়ের ধর্ম। ন্যায় অর্জনই ইসলামের প্রধান উদ্দেশ্য। ইসলাম সর্ব ক্ষেত্রেই ন্যায়ের পথকে গ্রহণ করতে নির্দেশ করে।

এই বাক্যগুলোকে দুইভাবে ব্যাখ্যা করা যায় —

এক. ন্যায়ের ধারণা শরিয়াতের বিধান গ্রাহ্য হওয়ার জন্য পৃথক এক মূলনীতি। এর জন্য নবী রাসুলদের দিক-নির্দেশনা এবং ওহীর…

photo_2020-08-23_01-24-59 (5)

ইসলামে ফিতরাতের ধারণা

ইসলামী ইতিহাসের প্রথম যমানাতে মু’তাযিলাদের মতো যেই কালামী এবং দার্শনিক ভ্রান্তির আত্মপ্রকাশ হয়েছিল, সেটা মুসলিম দুনিয়ায় বৃটিশ উপনিবেশের পর আধুনিকবাদীদের মাধ্যমে পুনরায় প্রাদুর্ভাব হয়েছে। যাদেরকে আমরা নব্য মু’তাযিলা বলতে পারি। উভয় গোষ্ঠির মাঝেই পদ্ধতিগতভাবে এক আশ্চর্যজনক মিল আছে। তবে তাদের আলোচনায় কিছুটা পার্থক্য আছে। নব্য মু’তাযিলাদের মৌলিক ভ্রান্তি হল, তারা শরীয়তকে…

ইসলামে ফিতরাতের ধারণা

ইসলামী ইতিহাসের প্রথম যমানাতে মু’তাযিলাদের মতো যেই কালামী এবং দার্শনিক ভ্রান্তির আত্মপ্রকাশ হয়েছিল, সেটা মুসলিম দুনিয়ায় বৃটিশ উপনিবেশের পর আধুনিকবাদীদের মাধ্যমে পুনরায় প্রাদুর্ভাব হয়েছে। যাদেরকে আমরা নব্য মু’তাযিলা বলতে পারি। উভয় গোষ্ঠির মাঝেই পদ্ধতিগতভাবে এক আশ্চর্যজনক মিল আছে। তবে তাদের আলোচনায় কিছুটা পার্থক্য আছে। নব্য মু’তাযিলাদের মৌলিক ভ্রান্তি হল, তারা শরীয়তকে…

photo_2020-08-23_01-24-59 (3)

উম্মাহ যার ইলম থেকে বঞ্চিত

শাইখ আব্দুল আজীজ আত তারিফী (আল্লাহ তাঁর মুক্তিকে তরান্বিত করুন) এই মানুষটার কথা চিন্তা করলে আমার কান্না চলে আসে। কেন কান্না আসে জানেন? কারণ উম্মাহ তাঁর ইলম থেক ...

উম্মাহ যার ইলম থেকে বঞ্চিত

শাইখ আব্দুল আজীজ আত তারিফী (আল্লাহ তাঁর মুক্তিকে তরান্বিত করুন) এই মানুষটার কথা চিন্তা করলে আমার কান্না চলে আসে। কেন কান্না আসে জানেন? কারণ উম্মাহ তাঁর ইলম থেক ...

photo_2020-08-23_01-24-59 (2)

মাকাসিদে শরিয়াহ তত্ত্বের অপপ্রয়োগ (১ম পর্ব)

অনেক আলিমই শরিয়াহর বিধানসমূহের উপকারিতা (মাসালিহ) এবং তার উদ্দেশ্য (মাকাসিদ) নিয়ে কিতাব রচনা করেছেন। তাদের এসব আলোচনার উদ্দেশ্য কখনো এটা ছিলো না যে, শরিয়ার ...

মাকাসিদে শরিয়াহ তত্ত্বের অপপ্রয়োগ (১ম পর্ব)

অনেক আলিমই শরিয়াহর বিধানসমূহের উপকারিতা (মাসালিহ) এবং তার উদ্দেশ্য (মাকাসিদ) নিয়ে কিতাব রচনা করেছেন। তাদের এসব আলোচনার উদ্দেশ্য কখনো এটা ছিলো না যে, শরিয়ার ...

photo_2020-08-23_01-24-58

থানবির বয়ানে মাক্বাসিদের অপব্যবহার

স্পর্শকাতর বিষয়গুলো চিরকালই স্পর্শকাতর। এগুলো থেকে আমাদের সজাগ দূরত্ব রেখেই চলা কাম্য। তেমন একটি বিষয় হল মাকাসিদে শরিয়াহ। আজকাল অহরহই এর অপব্যবহার দেখা যায ...

থানবির বয়ানে মাক্বাসিদের অপব্যবহার

স্পর্শকাতর বিষয়গুলো চিরকালই স্পর্শকাতর। এগুলো থেকে আমাদের সজাগ দূরত্ব রেখেই চলা কাম্য। তেমন একটি বিষয় হল মাকাসিদে শরিয়াহ। আজকাল অহরহই এর অপব্যবহার দেখা যায ...

নির্বাচিত ব্লগ

তাওয়ারুসে প্রকাশিতসেরা কয়েকটিব্লগ

Shopping Basket