photo_2020-09-13_22-48-10

ইসলামি ইতিহাস পাঠের পূর্ব সতর্কতা

ঠিক এমনিভাবে প্রাচ্যবিদদেরও ইসলামী ইতিহাস চর্চার আলাদা নীতি ও উদ্দেশ্য আছে। অধিকাংশ তো ইসলামকে বিকৃত করা, মানুষের কাছে ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করা, মুসলিমদের ভিতর ইসলামের ব্যাপারে সন্দেহ তৈরি করা, পাশ্চাত্যের সাথে ইসলামকে সামঞ্জস্যশীল করা সহ ইত্যাদি বিকৃত এজেন্ডা সামনে নিয়ে ইসলামকে পড়েছে। মুসলিমদেরকে পাশ্চাত্যের ধর্মে দীক্ষিত করা, মুসলমানদের উপর তাদের উপনিবেশ ও আদর্শিক কর্তৃত্ব টিকিয়ে রাখা এবং পাশ্চাত্য ও ইসলামী সভ্যতার মাঝে সংঘাতময় জায়গাগুলো মিটিয়ে দেয়া ছিল তাদের প্রধান লক্ষ্য। আবার কেউ কেউ নিরপেক্ষতার জায়গা থেকেও ইসলামী জ্ঞানকে চর্চা করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু তারা পাশ্চাত্য কিছু মূল্যবোধে বিশ্বাসী হওয়ায় সেই জায়গা থেকে ইসলামকে দেখেছে। হাসান আসকারী রহিঃ বলেন, প্রাচ্যবিদদের ইসলামী জ্ঞান চর্চার নেপথ্যে ষড়যন্ত্রমূলক বিভিন্ন উদ্দেশ্য ছিল। তবে এই উদ্দেশ্যসমূহের পাশাপাশি সেসব চিন্তাচেতনার প্রভাব কার্যকর ছিল যেগুলো পশ্চিমা সভ্যতার ইতিহাসে নানাভাবে জন্ম নিয়েছিল। যেমন ইতিহাসবাদ, মুক্তচিন্তা, বস্তুবাদ ইত্যাদি। ফলে ষড়যন্ত্রমূলক উদ্দেশ্যের বাইরে থেকেও যারা নিষ্ঠার সাথে ইসলামী জ্ঞান চর্চার প্রতি মনোনিবেশ করেছিল উল্লেখিত পাশ্চাত্য দর্শনগুলোর প্রভাবে তাদের মস্তিষ্কটাই বিকৃত হয়ে…